Mughal Period of Indian History Babar to Aurangzeb

ভারতের ইতিহাসঃ মুঘল যুগ (1526 – 1707)

ইতিহাসকে ভাল করে জানতে হলে ইতিহাসের কালপঞ্জী সম্পর্কে সম্যক ধারনা থাকা দরকার। সংক্ষিপ্ত আকারে কালপঞ্জী তুলে ধরা হলো। নিখুঁতভাবে সঠিক সময়পঞ্জী বের করা সম্ভব নয়। বিভিন্ন দুষ্প্রাপ্য পুঁথি, শিলালিপি, ঐতিহাসিক গ্রন্থ থেকে যেটুকু জানা যায় তার উপর ভিত্তি করে একটা আনুমানিক সময় পঞ্জী দেওয়া হলো। ঐতিহাসিক ভেদে এই সময়পঞ্জী ভিন্ন হতে পারে। Mughal Period of Indian History এই পোষ্টে আমরা মুঘল যুগের সূচনাপর্ব বাবর থেকে শুরু করে শেষ শক্তিশালী সম্রাট ঔরঙ্গজেব পর্যন্ত আলোচনা করব।

                   ভারতীয় উপমহাদেশের সময়পঞ্জী

** সময়পঞ্জীর সবুজ করা অংশটি এই অধ্যায়ে আলোচনা করা হল।

  • প্রাচীন যুগঃ
  • প্রস্তর যুগঃ ———-৭০০০০ – ৩৩০০ খ্রীষ্ট পূর্ব
  • মেহেরগড়ঃ ———-৭০০০ – ৩৩০০ খ্রীষ্ট পূর্ব
  • সিন্ধু সভ্যতাঃ ———৩৩০০ – ১৭০০ খ্রীষ্ট পূর্ব
  • বৈদিক যুগঃ ———-১৫০০ – ৫০০ খ্রীষ্ট পূর্ব
  • লৌহ যুগঃ ———–১২০০ – ৩৩০ খ্রীষ্ট পূর্ব
  • কুরুক্ষেত্রের যুদ্ধঃ ——-১০০০ খ্রীষ্ট পূর্ব
  • ষোড়শ মহাজনপদঃ ——৭০০ – ৩০০ খ্রীষ্ট পূর্ব
  • হজরত মহম্মদের জন্মঃ —-৫৭০ খ্রীষ্ট পূর্ব
  • গৌতম বুদ্ধের জন্মঃ—— ৫৬৩ খ্রীষ্ট পূর্ব
  • মহাবীরের জন্মঃ ——–৫৪০ খ্রীষ্ট পূর্ব
  • আলেকজান্ডারের ভারত আক্রমনঃ —–৩২৬  খ্রীষ্ট পূর্ব
  • মৌর্য্য সাম্রাজ্যঃ——– ৩২১ -১৮৫ খ্রীষ্ট পূর্ব
  • গুপ্ত সাম্রাজ্যঃ ———৩২০ খ্রীষ্টাব্দ -৪৬৭ খ্রীষ্টাব্দ
  • মহাভারত লিখিত হয়ঃ —৪০০ খ্রীষ্টাব্দে (সময় কাল ১০০০ খ্রী.পূ. -৪০০ খ্রী.)
  • হর্ষ যুগঃ ———–৬০৬ -৬৪৭ খ্রীষ্টাব্দ
  • রামায়ন লিখিত হয়ঃ —১২০০ খ্রীষ্টাব্দে ( সময় কাল ৫০০ খ্রী.পূ. -১২০০ খ্রী.)
  • মধ্যযুগঃ
  • সুলতানি যুগঃ ——-১২০৬ – ১৫২৬ খ্রীষ্টাব্দ
  • মোগল যুগঃ ——–১৫২৬ – ১৭০৭ খ্রীষ্টাব্দ
  • মারাটা সাম্রাজ্যঃ —–১৬৭৪  -১৮১৮ খীষ্টাব্দ
  • শিখ সাম্রাজ্যঃ ——-১৭৯৯ খ্রী. -১৮৪৯ খীষ্টাব্দ
  • ব্রিটিশ ভারতঃ ১৮৫৮ খ্রী. -১৯৪৭ খীষ্টাব্দ

★ মুঘল ইতিহাস রচনার উপাদানঃ Mughal Period of Indian History

  •  ‘আকবরনামা — আবুল ফজল.
  • ‘আইন ই আকবরী ‘ — আবুল ফজল.
  • ‘আলমগীর নাম  — মির্জা মোহাম্মদ নাজিম কাজিম.
  • ‘তুজুক- ই -বাবরি ‘ — বাবর
  • ;’তুজুক -ই- জাহাঙ্গীরী’ — জাহাঙ্গীর
  • ‘হুমায়ুননামা ‘ — গুলবদন বেগম. (বাবর এর কন্যা).

★ ভারতে মুঘল শক্তিঃ Mughal Period of Indian History

বাবরঃ

  • .’মুঘল ‘বা ‘মোগল’ কথাটির উৎপত্তি — মোঙ্গল শব্দ থেকে ।.
  • মুঘলদের আদি নিবাস ছিল — মধ্য এশিয়া।
  • মুঘল সাম্রাজ্যের প্রতিষ্ঠাতা  ছিলেন — বাবর। তার বাবা ওমর শেখ মির্জা ছিলেন তৈমুর লং এর বংশধর ও মা ছিলেন চেঙ্গিস খাঁর বংশধর।
  • বাবর এর প্রকৃত নাম ছিল — জহির উদ্দিন মোহাম্মদ।
  • তুর্কি ভাষায় বাবর কথার অর্থ— সিংহ
  • এর পরের বছর 1527 খ্রিস্টাব্দে রানা সুঙ্গ সাথে খানুয়ার যুদ্ধ হয়েছিল।
  • তিনি প্রথম যুদ্ধক্ষেত্রে কামান ব্যবহার করেন।
  • তিনিই প্রথম জিহাদ ঘোষনা করেন ।
  • তিনি পাদশা উপাধি নিয়েছিলেন।
  • অযোধ্যার রামজন্মভুমিতে বিতর্কিত বাবরি মসজিদ নির্মাণ করেছিলেন।
  • বাবর প্রথম শাসক হিসাবে আত্মপ্রকাশ করেন — মাত্র 11 বছর বয়সে ফারগানা রাজ্যের রাজা হিসাবে।
  • দিল্লীর সিংহাসন দখলের বাসনায় বাবরকে ভারত আক্রমণের আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন — দৌলত খাঁ লোদি।
  • পানিপথের প্রথম যুদ্ধ — 1526 সালের ২১ শে এপ্রিল পানিপথের প্রথম যুদ্ধ ইব্রাহিম লোদী ও বাবর এর মধ্যে হয় এবং ইব্রাহিম লোদী পরাজিত হয়।
  • খানুয়ার যুদ্ধ —- 1527 সালে বাবর ও মেবারের রানা সঙ্গর সাথে হয় এবং রানা সঙ্গ পরাজিত হন।
  • চান্দেরি দুর্গ আক্রমণ —  বাবর রানা সংঘের বিশ্বস্ত অনুচর মেদিনী রায় কে পরাজিত করে গোয়ালিয়র রাজ্যের চান্দেরি দুর্গ টি অধিকার করেন1528 সালে।
  • ঘর্ঘরা যুদ্ধ বা গোগোরার যুদ্ধ — 1529 সালে,বাবর ও আফগানদের মধ্যে হয়।এবংযুদ্ধে আফগানরা পরাজিত হন।
  • “সমকালীন যুগে বাবর ছিলেন এশিয়ান গ্রুপের মধ্যে সর্বাধিক প্রতিভা সম্পন্ন এবং ভারতীয় রাজন্যবর্গের মধ্যে সর্বশ্রেষ্ঠ আসল লাভের অধিকারী “এ কথা বলেছিলেন — ঐতিহাসিক ভিন্সেন্ট স্মিথ।
  • বাবরের আত্মজীবনী — ‘তুজুক ঈ বাবরি’বা ‘বাবরনামা‘। নিজে লিখেছিলেন ।
  • বাবর দেহ ত্যাগ করেন —1530 খ্রিস্টাব্দে আগ্রায় । পাকিস্তানের কাবুলে তাকে কবর দেয়া হয়।
  • Educational Tips: http://edutips.in  
হুমায়ুনঃ
  • এরপরে বাবরের ছেলে হুমায়ুন মোগল সিংহাসনে বসেন।
  • হুমায়ুন দিল্লির সম্রাট হন — 1530 সালে।
  • চৌসার যুদ্ধ — 1539 সালে চৌসার প্রান্তরে হুমায়ুন ও শের খার মধ্যে হয়, তাতে মুঘল শক্তি পরাজিত হয়।
  • বিলগ্রামের যুদ্ধ —  1540 খ্রিস্টাব্দে কনৌজের বিপরীত দিকে হুমায়ুন ও শের খার মধ্যে হয়, হুমায়ুন শেরশাহের কাছে সম্পূর্ণরূপে পরাজিত হন।
  • হুমায়ুন ভারতে মুঘল শক্তির পুনঃপ্রতিষ্ঠা সম্ভব করে তোলেন — 1555 সালে।
  • হুমায়ুননামা‘ বইটি — হুমায়ুন লেখেন।
  • হুমায়ূন ১৫৫৬ খ্রিস্টাব্দ এ মাচা থেকে পড়ে মারা জান।

★শেরশাহ ও সুর সাম্রাজ্যঃ [1540 – 55] Mughal Period of Indian History

শেরশাহঃ

  1. শেরশাহের প্রকৃত নাম কি ছিল?
    = ফরিদ।
  2. শেরশাহ কে ”শের খা” উপাধি দেন কে?
    = বিহারের সুলতান বাহার খা লোহানি।
  3. সুরজগড়ের যুদ্ধ কবে কাদের মধ্যে হয় এবং কে পরাজিত হন?
    = 1534সালে শেরশাহ,( জালাল খাঁ লোহানী ও বাংলার সুলতান মামুদ শাহের সম্মিলিত বাহিনীকে) পরাজিত করেন।
  4. পাট্টা কি?
    = ভূমি রাজস্ব ব্যবস্থায় শেরশাহ ও প্রজাস্বত্ব ও দেওয়া খাজনা উল্লেখ করে প্রতিটি প্রজাকে পাট্টা নামে দলিল দেয়া হতো।
  5. কবুলিয়াত কি?
    = শেরশাহের ভূমি রাজস্ব ব্যবস্থায় কবুলিয়ত নামে এক দলিল দ্বারা প্রজারা রাজস্ব আদায় দিতে স্বীকৃতি থাকত।
  6. ‘সড়ক ই আজম ‘;’গ্রান্ড ট্রাঙ্ক রোড ‘গড়ে তোলার ব্যাপারে কার বিশেষ অবদান আছে?
    = শেরশাহ।
  7. দিল্লির পুরানো কেল্লা কার সময়ে নির্মিত হয়?  = শেরশাহ।
  8. ঘোড়ার পিঠে করে ডাক চলাচলের ব্যবস্থা শুরু করেন কে?
    = শেরশাহ।
  9. রুপাইয়া নামে পরিচিত ছিল কি?
    = শেরশাহ ও আধুনিক টাকার মতো নির্দিষ্ট মূল্যের এক প্রকার রুপার মুদ্রার প্রচলন করেন একে রুপাইয়া বলা হত সেগুলি টংকা নামেও পরিচিত হয়।
  10. ” যদি শেরশাহ আরো কিছুকাল বেঁচে থাকত ইতিহাসের রঙ্গমঞ্চে মহান মুঘল সম্রাট এর আবির্ভাব হয়তো ঘটতো না” এ কথা কে বলেছেন?
    = ঐতিহাসিক ভিন্সেন্ট স্মিথ।
  11. শের খাঁ বারাণসীতে নিজেকে  —- শের শাহ আদিল, নামে স্বাধীন সম্রাট বলে ঘোষণা করেন।
  12. শের শাহের মৃত্যুর হয়  — 1545 খ্রিস্টাব্দে.
  13. শেরশাহকে সমাধিস্থ করা হয় কোথায় ? =বিহারের সাসারাম এ 1545 খ্রিস্টাব্দে।

আকবর

  • আকবর জন্মগ্রহণ করেন কোথায় এবং কবে ?
    = সিন্ধু প্রদেশের অমরকোটে 1542 সালে ।
  • মঙ্গল নেতা হিসেবে হুমায়ুনের পরে 1556 খ্রিস্টাব্দে আকবরের রাজ্য অভিষেক হয়।
  • পানিপথের দ্বিতীয় যুদ্ধ — ১৫৫৬ খ্রীষ্টাব্দে পানিপথের দ্বিতীয় যুদ্ধ আকবর এবং হিমুর মধ্যে ।
  • হিমু একমাত্র হিন্দু রাজা যিনি দিল্লির সিংহাসনে বসেন।
  • বিক্রমজীত উপাধি ধারণ করেন কে ? — হিমু ।
  • বৈরাম খাঁ কে ছিলেন?
    = হুমায়ুনের বিশিষ্ট বন্ধু ও আকবরের অভিভাবক
  • হলদিঘাটের যুদ্ধ1576 খ্রিস্টাব্দে আকবর এবং রানা প্রতাপ সিংহের মধ্যে হয়েছিল।
  • আকবর 1582 খ্রিস্টাব্দে “দীন-ই-ইলাহী” ব্যবস্থা  চালু করেন এবং এই ব্যবস্থা বীরবল প্রথম গ্রহণ করেছিলেন।
  • ফতেপুর সিক্রি, বুলন্দ দরওয়াজা, আগ্রা ফোর্ট, হুমায়ুন টম সবই আকবরের তৈরি।
  • আইন ই আকবরী, আকবরনামা বইগুলি লিখেছিলেন — আকবরের সভাকবি আবুল ফজল ।
  • এছাড়াও আকবর মনসবদারি ব্যবস্থা, রেভিনিউ সিস্টেম, মনসাব ব্যবস্থা প্রভৃতি চালু করেন।
  • রাজমহলের যুদ্ধ কবে কাদের মধ্যে সংঘটিত হয়? —  1576 খ্রিস্টাব্দে বাংলার বিদ্রোহী পাঠান সুলতান দাউদ করো রানীকে আকবর পরাজিত ও নিহত করেন
  • তুলসীদাস, সুরদা্‌ বীরবল, আব্দুর রহিম খান, খান আব্দুল কাদির বদায়ুনী কোন যুগের মানুষ ছিলেন? — আকবরের আমলের ।
  • আকবরের জীবনের শেষ যুদ্ধ কি ছিল ?– আসীরগড়ের যুদ্ধ।
  • ১৬০৫ খ্রিস্টাব্দে আকবর মারা যান।

জাহাঙ্গীরঃ

  • সেলিম কি উপাধি নিয়ে দিল্লির সিংহাসনে বসেন? — নুরুদ্দিন মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর বাদশাহ
  • জাহাঙ্গীর কাকে শাহজাহান উপাধিতে ভূষিত করেন এবং কেন ? — শাহজাদা খুররম এর নেতৃত্বে দাক্ষিণাত্যের মুঘল বাহিনীর সাফল্যের জন্য সম্রাট জাহাঙ্গীর খুররম কে শাহজাহান উপাধিতে ভূষিত করেন।
  • সম্রাট জাহাঙ্গীর পঞ্চম শিখ গুরু অর্জুন কে প্রাণদন্ডে দন্ডিত করলে শিখ মুঘল শত্রুতার সূত্রপাত হয় ।
  • তুজুক ই জাহাঙ্গীরী কার আত্মজীবনী?— জাহাঙ্গীর, এইটি তুর্কি ভাষায় লেখা।
  • জাহাঙ্গীরের মৃত্যু হয় কবে ?— 1627 খ্রিস্টাব্দ ।

শাহাজাহান

  • শাহাজাহান মোঘল সিংহাসনে বসেন কবে?—  1628 খ্রিস্টাব্দের ।
  • শাহজাহান কত খ্রিস্টাব্দে আহম্মদনগর জয় করেন ? — 1633 খ্রিস্টাব্দে ।
  • তাজমহল এর রূপকার কে ছিলেন ?— বাঙালি শিল্পী বলদেও দাস।
  • ময়ূর সিংহাসনঃ এটি ছিল শাহজাহানের আর এক শিল্পকীর্তি । এটি নির্মান করেন শিল্পী বেবাদল খাঁ ।
  • Educational Tips: http://edutips.in  

ঔরঙ্গজেব

  • কোন যুদ্ধে ঔরঙ্গজেব উত্তরাধিকারসূত্রে যুদ্ধে জয়ী হন এবং শেষ পর্যন্ত নিজেকে দিল্লির সিংহাসনে সম্রাট রূপে অভিহিত করেন?— সামুর গড়ের যুদ্ধ 1658 খ্রিস্টাব্দ ।
  • ঔরঙ্গজেবের উপাধি গুলি কি কি?— আলমগীর,  বাদশাহ,  গাজী।
  • ঔরঙ্গজেব নবম গুরু তেগ বাহাদুরকে হত্যা করেন।
  • ঔরঙ্গজেব কে জিন্দাপীর বলা হতো
  • নওরোজ উৎসব চালু করেন।

আরো পড়ুনঃ- রাষ্ট্রকূট-চোল-চালুক্য

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *